পীরগঞ্জে মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

দ্বারা hello@anbnews24.com
পীরগঞ্জে মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

বখতিয়ার রহমান,,পীরগঞ্জ (রংপুর): রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার ধর্মদাসপুর আমিনিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে নিয়মবহির্ভুত ভাবে  অসম্পূর্ন  কাগজপত্র( সনদ)ভিন্ন উপায়ে সম্পন্ন করার কথাবলে    চকুরি দেয়ার অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন ভুক্তভোগী এক  নিয়োগ প্রাপ্ত শিক্ষিকা ফেরদৌসী আক্তার ।
অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার তাঁতারপুর গ্রামের গোলাম মোস্তফার স্ত্রী ফেরদৌসী আক্তারকে উক্ত মাদ্রাসার সুপার জুনিয়র শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় । কিন্তু ফেরদৌসী আক্তার এর এনটিআরসি সনদ না থাকায় ফেরদৌসী আক্তার তাতে অসম্মতি জানানোর পরেও মাদ্রাসার  সুপার নজরুল ইসলাম এনটিআরসি সনদ ও বেতন ভাতা সহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করে নিয়োগ দেওয়ার নামে  ৭ লাখ টাকা গ্রহন করেন । । পরবর্তিতে টাকা প্রাপ্তির পর বিগত ২৩/১০/১১ ইং ফেরদৌসী আক্তারকে মাদ্রাসাটিতে জুনিয়র শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় । নিয়োগ প্রাপ্তির পর থেকে ফেরদৌসী আক্তার মাদ্রাসাটিতে শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন । পরে ঐ শিক্ষিকাকে জানানো হয়   বেতন ও ভাতার কোন  ব্যবস্থা হয়নি ।  শিক্ষিকা  বিষয়টি জানার পর  সুপারের কাছে টাকা ফেরত চাইলে তিনি বিভিন্ন অজুহাতে টাকা ফেরত দিতে অস্বীকৃতি জানান । ফলে মানষিক ভাবে বিপর্যস্থ শিক্ষিকিা মঙ্গলবার   এ অভিযোগ দাখিল করেন ।
এ ব্যাপারে উক্ত মাদ্রাসার সুপার নজরুল ইসলাম সহকারি শিক্ষিকা পদে ফেরদৌসীকে চাকুরিতে নিয়োগ দেয়ার কথা  স্বীকার করে বলেন, তার কাছ থেকে টাকা নেয়ার বিষয়টি মিথ্যা ।
মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বলেন, টাকা নেয়ার বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে ওই শিক্ষিকাকে মাদ্রাসায় নিয়োগ দেওয়া হয়েছিলো।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মমিন মন্ডল বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে ।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিরোদা রানী রায় বলেন, অভিযোগেটি এখনও হাতে পাইনি। তবে পেলেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন
0 মন্তব্য

মতামত দিন

Related Articles