নালিতাবাড়ীতে দরিদ্র শ্রমিকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

দ্বারা hello@anbnews24.com
নালিতাবাড়ীতে দরিদ্র শ্রমিকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

দৌলত হোসেন খান(শেরপুর) প্রতিনিধি: শেরপুরের নালিতাবাড়ী যোগানিয়া ইউনিয়নের গোবিন্দনগর গ্রামের ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসুচি(ইজিপিপি) এর শ্রমিকদের মজুরীর টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে জানান অসহায় শ্রমিকরা।

জানা গেছে, উপজেলার যোগানিয়া ইউনিয়নে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে গোবিন্দনগর আমানুল্লাহ মেম্বারের বাড়ি হতে সাখাওয়াতের বাঁধ পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ ৩০ হাজার ঘনফুট মাটি বরাদ্দ হয় অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসুচি(ইজিপিপি) প্রকল্পের মাধ্যমে। প্রকল্পটির সভাপতি ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ। এই প্রকল্পে ২৫ জন দরিদ্র শ্রমিক দৈনিক দুইশ’ টাকা মজুরীতে ৪০দিন কাজ করেন। এই প্রকল্পে তালিকার বাহিরে কোনো শ্রমিকের কাজ করার সুযোগ নেই। এতে প্রতিজনের মজুরী হয় মোট আট হাজার টাকা করে। দরিদ্রদের এই মজুরী ১৪ জুলাই,বুধবার ব্যাংক থেকে উত্তোলণ করে যোগানিয়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমীর হোসেন ইউপি সদস্য আমানুল্লাহর হাতে প্রদান করেন। আমানুল্লাহ এই টাকা দরিদ্র শ্রমিকদের ডেকে আড়ালে নিয়ে প্রতিজনকে সাত হাজার চারশত করে প্রদান করেন। বাকী ছয়শ’ করে টাকা নিজ পকেটস্থ করে আত্মসাৎ করেন। দরিদ্র শ্রমিক আরফুজ আলী(৬০), সালেহা খাতুন(৩২), মুর্শিদা বেগম(৪৩), জমিলা খাতুন, মমতাজ বেগম(৩০), রছমেত আলী(৫৫), আবু সালিম জানান, করোনা পরিস্থিতিতে তারা কর্মহীন। অসহায় দিনযাপন করছেন। এর মধ্যে সরকার তাদের প্রতি নজর দিয়ে কর্মসুচির শ্রমিক হিসেবে কাজ করার
সুযোগ দিয়েছেন। তাদের ঘামের টাকা মেম্বার আমানুল্লাহ ছয়শ’ করে রেখে দিয়েছেন। শ্রমিকের টাকা আত্মসাৎকারী মেম্বারের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি চান তারা।
এ ব্যাপারে যোগানিয়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমীর হোসেন জানান, আমি মেম্বারের হাতে প্রত্যেক শ্রমিকের ৪০ দিনের কাজের আট হাজার করে টাকা দিয়েছি। মেম্বার শ্রমিকদের মজুরীর যে টাকা পকেটে উঠিয়েছেন আমি তাকে ওই টাকা ফেরত দিতে বলেছি।

শেয়ার করুন
0 মন্তব্য

মতামত দিন

Related Articles