পীরগঞ্জে ৪০টি ঘরে অগ্নি সংযোগ ২ মামলায় গ্রেফতার – ৪২

দ্বারা hello@anbnews24.com
পীরগঞ্জে ৪০টি ঘরে অগ্নি সংযোগ ২ মামলায় গ্রেফতার - ৪২

বখতিয়ার রহমান, পীরগঞ্জ(রংপুর) : রংপুরের পীরগঞ্জে ধর্মীয় উষ্কানির ঘটনায় উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের বড় করিমপুর কসবা হিন্দু জেলে পল্লীতে আগুন দিয়ে প্রায় ৪০ টি ঘওে অগ্নি সংযোগ ও ভাংচুর হয়েছে । ওই ঘটনায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অর্ধশতাধিক রাউন্ড রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে। এদিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ৪২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। গত রোববার দিবাগত রাতে হিন্দু পল্লীতে আগুন লাগিয়ে দেয়ার ঘটনায় রংপুর জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, র‌্যাব, বিজিবি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। গতকাল সোমবারও তারা  ঘটনাস্থলে অবস্থান করেন।
একাধিক সুত্রে জানা গেছে, গত রোববার রাতে উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের বড়করিমপুর কসবা হিন্দু জেলে পল্লীর বাসিন্দা প্রশান্ত কুমারের ছেলে পরিতোষ কুমার (১৬) ফেসবুকের একটি পোস্টে মন্তব্যে কাবাঘরের ব্যঙ্গ ছবি দেয়। এ ঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে রাত ১০ টার পর বিক্ষুব্ধ জনতা কসবা হিন্দু জেলে পল্লীতে বসবাসরতদের বাড়ীঘর ভাংচুর করে আগুন লাগিয়ে দেয়। এতে ৪০ টির বেশি ঘর পুড়ে যায়। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অর্ধ শতাধিক রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে রাত ১ টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ব্যাপারে পুলিশ বাদী হয়ে পৃথক ২টি মামলা করেছে এবং মামলায় ৪২ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে । গতকাল সোমবার সকালে রংপুরের বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল ওহাব ভুইয়া, ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্জ্য, ৫১ বিজিপি রংপুরের সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল ইয়াসির জামান হোসাইন ঘটনাস্থলে আসেন। রংপুরের জেলা প্রসাশক আহসান হাবীব, পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিরোদা রানী রায় রাত থেকেই ঘটনাস্থলে ছিলেন। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর মাঝে রান্না করা সরবরাহ করা হয়। উপজেলা প্রশাসনের থেকে প্রতিটি পরিবারকে চাল, ডাল, চিনি, লবনসহ শুকনা খাবারের প্যাকেট, কম্বল, লুঙ্গী ও শাড়ি বিতরণ করা হয়। ইতোমধ্যে নতুন ঘর নির্মানের জন্য ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে ১০০ বান্ডিল টিন বরাদ্দ হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিরোদা রানী রায় বলেন, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে সংখ্যালঘু পরিবারের এক যুবকের ফেসবুকে ষ্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্র করে কসবা হিন্দু পল্লীতে সংখ্যালঘুর বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।
পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, বিনা উস্কানিতে নিরীহদের বাড়ীঘরে হামলা চালিয়ে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা অনেককে গ্রেফতার করেছি। জেলা প্রশাসক আসিব আহসান বলেন, ক্ষতিগ্রস্থদের ঘরবাড়ী মেরামত সহ সরকারী সকল সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

শেয়ার করুন
0 মন্তব্য

মতামত দিন

Related Articles