ত্রিশালের ৫ ম শ্রেণির ছাত্র রানা বাঁচতে চায়

দ্বারা hello@anbnews24.com
ত্রিশালের ৫ ম শ্রেণির ছাত্র রানা বাঁচতে চায়
আফরোজা আক্তার জবা ভালুকা প্রতিনিধি : মন ভুলানো হাসি রানার মুখে সবসময় বয়স ১২ বছর। সবসময় খেলা করা, বেড়ানো, আবার লেখাপড়া এগুলো ঘিরেই তার দিন চলে যায়। কিন্তু সমবয়সী অন্য শিশু রা ক্লান্তিহীন ভাবে খেলায় মত্ত থাকে, আর মাঝেই মাঝেই রানা অসুস্থ হয়েপরে যায়। ছোট রানা একটু হাটলে দৌড় দিলে শব্দ শুনলে ভয় পায়, এবং মাঝে মাঝেই বুকে ব্যথা হয়। পরে তার বাবা তাকে চিকিৎসার জন্য কবিরাজ ও পল্লী চিকিৎসকের কাছে কিছু প্রাথমিক চিকিৎসা করায় কিন্তু তাতে কোন কিছু হয়নি। পরে রানার দরিদ্র বাবা সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং সেখানে কিছু পরিক্ষা করান, পরিক্ষায় আসে তার হার্টে তিনটি ছিদ্র। লাগবে অপারেশন আকাশ ভেঙে পরলো দরিদ্র রানার বাবা জুয়েলের মাথার উপর।
 
 রানার পিতা পেশায় একজন জেলে। সুস্থতার জন্য লাগবে অপারেশন আর অপারেশন করার মত অর্থ নেই, যা কিছু ছিল তা বিক্রি করে সহায় সম্বল হীন।
 
সরে জমিনে গিয়ে জানা যায় রানা ৫ম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র, তার ইচ্ছা পড়াশুনা করে একদিন অনেক বড় হবে মা,বাবার দুঃখ দূর করবে, সন্তানের মুখের এ কথা শুনার পর বাবার মুখে নেই কোন হাসি। জুয়েল বলেন, ছেলেকে বাঁচাতে হলে অপারেশন করতে হবে আর তার ব্যয় আনুমানিক ৮ লাখ টাকা যাহা দরিদ্র জেলে হয়ে আমি বহন করতে পারছি না, তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও সমাজের বিত্তবানদের কাছে সহযোগিতা চাই। আপনাদের সহযোগিতায় আমার ছেলে যেন চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে উঠে।
 
রানার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার আমিরাবাড়ি ইউনিয়নের গুজিয়াম ধনিয়ার চালা। রানার মা রুনা আক্তার বলেন আমার একটি ছেলে আপনারা আমার ছেলের জন্য আপনাদের সহযোগিতার হাত বাড়ান আল্লাহ তায়ালার ইচ্ছায় আপনাদের সহযোগিতায় আমার ছেলে বাঁচবে। চিকিৎসা সহযোগিতার জন্য। ০১৭২৮৬৮৩৮২২ (বিকাশ) সঞ্চয়ী হিসাব মোঃ জুয়েল মিয়া ইসলামি ব্যাংক, গুজিয়াম বগার বাজার এজেন্ট ব্যাংকিং শাখা ত্রিশাল ময়মনসিংহ। হিসাব নং ২০৫০৭৭৭০২০২৭০৭১১০
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
শেয়ার করুন
0 মন্তব্য

মতামত দিন

Related Articles