নালিতাবাড়ীতে ভুয়া দলিল দিয়ে সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা

দ্বারা hello@anbnews24.com
নালিতাবাড়ীতে ভুয়া দলিল দিয়ে সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা


 মিথ্যা মামলায় দিশেহারা  বৃদ্ধার পরিবার

    নিজস্ব প্রতিনিধি : শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে পোড়াগাও ইউনিয়নের বেকী কুড়া মৌজায় আমবাগান বাজারের একটি দোকান ঘর যাহার বি আর এস খতিয়ান ৩৫ দাগনং ২৬৩, জমির পরিমান মাত্র ৩৪ শতকের কাতে আধা শতক বর্তমান মলিক বাংলাদেশ সরকার । দখল সত্বে দখলদার মো. নিজাম উদ্দিন ।

নিজাম উদ্দিন টাকার প্রয়াজনে দখল সত্বে গ্রাম্য দলিলে আধা শতক জমি বিক্রি করেন স্থানীয় আব্দুর রউফ নামের এক ব্যক্তির নিকট । আব্দুর রউফ জীবন জীবিকার তাগিতে ঢাকা চলে যাওয়ার পূর্বে গ্রাম্য দলিল মূলে ক্রয় সুত্রে দখলদার মালিক হিসেবে বিক্রি করে মালিকানা হস্থান্তর  করেন স্থানীয় আব্দুল মোতালেবের নিকট । আব্দুল মোতালেব সেখানে (ওই জমিতে একটি হাল্ফ বিল্ডিং করে (সংস্কার) করে ভাড়া দেন স্থানীয় মো. আজগর আলী ওরফে দুলাল মাস্টারের নিকট । দুলাল মাষ্টার বেশ কিছুদিন ভাড়া দিয়ে আসলেও পরে ভাড়া দেওয়া বন্ধ করে দেিএবং নিজে জমির মালিকানা দাবী করে। দুলাল মাষ্টার জমির মালিকানা প্রশ্ন দেখা দিলে জানা যায় আজগর আলী দুলাল মোতালেবের নাতি ইব্রাহিমের নিকট ক্রয় সূত্রে মালিকানা দাবী করে ভাড়া বন্ধ করেন ।

এ ব্যাপারে মোতালেবের স্ত্রী  শেরপুর ম্যজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন ।

মামলাটি তদন্ত আসে নালিতাবাড়ী থানায় ।

নালিতাবাড়ী থানায় তদন্তকালে ইব্রাহিম কোন মালিকানা প্রতিষ্ঠিত না করতে পাড়ায় আজগর আলী দুলাল মোতালেবকে মালিক হিসেবে ভাড়া দেওয়ার শর্তে আপোষে নিষ্পত্তি করেন । কিছুদিন পড়ে বিগত ৫/৬ মাস পুর্বে আজগর আলী দুলাল মাস্টার আবার ভাড়া দেওয়া বন্ধ করে দেন । নালিতাবাড়ী থানায় আপোষ মিমাংসার সুত্র ধরে মোতালেবের স্ত্রী হামেদা বেগম নালিতাবাড়ী থানার সরনাপন্ন হলে, থানা কর্তৃপক্ষ আজগর আলীকে ১ মাসের মধ্যে তার মালামাল সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেন এবং শান্তি শৃঙ্খলার জন্য  দোকান বন্ধ রাখতে বলেন।

এমতাবস্তায় আজগর আলী বারবার ভাড়া বন্ধকরে  দেওয়ার কারন জানতে চাইলে মোতালেব ও তার স্ত্রী আমাদের প্রতিনিধিকে জানান ,তাদের ভাড়াটিয়া আজগর আলী তাদের নাতি ইব্রাহিমের নিকট একটি গ্রাম্য দলিল করে নিয়েছে । এখন ইব্রাহিমের মালিকানা প্রতিষ্ঠিত করতে আব্দুর রউফ ওরফে সাবদুল ডাক্তারের  স্বাক্ষরের একটি গ্রাম্য ভূয়া দলিল দিয়ে আদালতে মামলা দিয়েছে । তারা ইতিমধ্যে নোটিশ পেয়েছেন বলে জানান । এর আগে এমন একটি জাল দলিল দিয়ে তাদের হয়রানী করলে নালিতাবাড়ী থানায় তা প্রমাণ হয়েছে বলে জানান মোতালেবের স্ত্রী ও আব্দুর রউফ । 

এই দলিল দিয়ে আদালতে মামলা

এ ব্যাপারে আমাদের  প্রতিনিধি বিষয়টি জানতে আব্দুর রউফের মুখোমুখি হলে তিনি জানান,  ইব্রাহিমের জন্মের  আগে তার দাদা মোতালেবের নিকট দখল স্বত্বে বিক্রী করেছেন এই জমি । ২য় বার একই জমি তিনি  ইব্রাহিমের নিকট বিক্রি   করেন নাই । ইব্রাহিম ও ভাড়াটিয়া আজগর আলী ওরফে দুলাল মাস্টার যোগ সাজসে একটি ভুয়া গ্রাম্য দলিলে তার স্বাক্ষর জাল করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে । তাকে এমন একটি বিশৃঙ্খলায় জড়িত করার জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে বিচার চাইবেন তাতে প্রতিকার না পেলে আইনের আশ্রয় নিবেন বলে জানান ।

শেয়ার করুন
0 মন্তব্য

মতামত দিন

Related Articles